Header Ads

  • Latest Update

    নেতৃত্বের কারিগর - ক্যাডেট কলেজ- Cadet college

    নেতৃত্বের কারিগর - ক্যাডেট কলেজ- Cadet college


    দেশে ১২টি ক্যাডেট কলেজ রয়েছে, যার মধ্যে মেয়েদের জন্য রয়েছে ৩টি কলেজ।





    ‘নেতৃত্বের কারিগর, সর্বোত্তম ও সর্বোজ্জ্বল’—এই স্লোগানেই উদ্দীপ্ত দেশের সব ক্যাডেট কলেজে অধ্যয়নরত প্রত্যেক ক্যাডেট।



    ক্যাডেট কলেজগুলো শুধু সপ্তম শ্রেণীতেই শিক্ষার্থী ভর্তি করে থাকে, অর্থাৎ সপ্তম শ্রেণী থেকেই ক্যাডেট কলেজের কারিকুলাম শুরু হয়। ক্যাডেট কলেজগুলোয় এনসিটিবি কর্তৃক নির্ধারিত নিম্নমাধ্যমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকের সাধারণ পাঠ্যসূচি ইংরেজি ভার্সনে পাঠদান করা হয়। এর পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের নেতৃত্বের গুণাবলিতে সমৃদ্ধ করতে ও যথার্থ ক্যাডেট হিসেবে গড়ে তোলার জন্য নিয়মিত পাঠদানের সঙ্গেই যাবতীয় সহপাঠ কার্যাবলিও পরিচালিত হয়। সম্পূর্ণ আবাসিক হওয়ায় শিক্ষার্থীদের মধ্যে স্বনির্ভরতা গড়ে তোলার পাশাপাশি সঙ্গে কঠোর শৃঙ্খলা ও নিয়মানুবর্তিতার অনুশীলন তো রয়েছেই।

    পরীক্ষাপদ্ধতি:
    সব ক্যাডেট কলেজে একটি নির্দিষ্ট দিনে পৃথকভাবে লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হয়। পরীক্ষায় বাংলা, ইংরেজি, গণিত, সাধারণ জ্ঞান ও বুদ্ধিমত্তা যাচাইয়ের প্রশ্নসংবলিত মোট ২০০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা হয়ে থাকে। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীদের ৫০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হয়। লিখিত ও মৌখিক উভয় পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে মেডিকেল টেস্ট নেওয়া হয় এবং চূড়ান্তভাবে উত্তীর্ণদের মধ্য থেকে প্রতিটি ক্যাডেট কলেজে ৫০ থেকে ৫৫ জন শিক্ষার্থী সপ্তম শ্রেণীতে ভর্তির সুযোগ পেয়ে থাকে। ভর্তির জন্য ন্যূনতম যোগ্যতা হিসেবে পরীক্ষার্থীকে বাংলাদেশি ও শারীরিক-মানসিকভাবে সম্পূর্ণ সুস্থ হতে হবে। উচ্চতা ছেলে ও মেয়েদের জন্য কমপক্ষে চার ফুট আট ইঞ্চি এবং প্রত্যেককে ষষ্ঠ শ্রেণী উত্তীর্ণ হতে হবে। এ ছাড়া পরীক্ষার্থীর বয়স সর্বোচ্চ ১৪ বছর হতে হবে। একাডেমিক বা ক্যাডেট জীবন-সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাবে কাডেট কলেজের ওয়েবসাইটে: cadetcollege.army.mil.bd

    No comments

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad

    ad728